ফিচার

ওয়াশরুম পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার ১০টি উপায়

নরসুন্দা ডটকম   April 19, 2018
ওয়াশরুম পরিষ্কার
বাইরের ওয়াশরুম কিংবা অফিসের ওয়াশরুম পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা রেখে ব্যবহার করাটা এক ধরনের ভদ্রতার পরিচয় দেয়। নিজের ওয়াশরুম যতটা পরিষ্কার রেখে ব্যবহার করতে চান ঠিক ততটাই বাইরের ওয়াশরুম পরিষ্কার বা ভদ্রতা রেখে ব্যবহার করা জরুরী।

ওয়াশরুম ব্যবহারে কিছুটা নিয়ম মেনে চলতে পারলেই ভদ্রতা বজায় রাখা সম্ভব। তবে চলুন কিছু নিয়ম দেখে নেওয়া যাক-

১) অনেকেই ওয়াশরুম ব্যবহার করার পর ফ্লাশ করতে ভুলে যান কিংবা ফ্লাশ না করেই বের হয়ে যান। এটা মোটেও ঠিক কাজ নয়। অবশ্যই কমোড ভালো করে ফ্ল্যাশ করতে হবে। প্রয়োজনে দুই থেকে তিনবার ফ্ল্যাশ করুন। বের হওয়ার সময় ঢাকনা বন্ধ করে বের হবেন।

২) ওয়াশরুমে টয়লেট পেপার ব্যবহার অবশ্যই ব্যবহার করবেন। ব্যবহারের পর নোংরা টয়লেট পেপার কমোডে ফেলে ফ্ল্যাশ করে দিন বা নির্দিষ্ট কোন ঝুড়িতে ফেলে দিন।

৩) ওয়াশরুমে রাখা সমস্ত টয়লেট পেপার একবারেই শেষ করে ফেলবেন না। পরবর্তী সময়ে যিনি আসবেন, তার কথা ভেবে খানিকটা রেখে দিন।

৪) ওয়াশরুমের ভিতরে অকারণে পানি ফেলে ভরে ফেলবেন না। চেষ্টা করবেন মেঝেতে যতটা সম্ভব পানি কম ফেলতে। তাছাড়া বেসিন রয়েছে, সেটি ব্যবহার করুন। তবে খেয়াল রাখবেন, বেসিন খোলা রেখে বের হবেন না।

৫) অনেকেই আছেন যারা কমোড ব্যবহার করতে বিরক্ত বোধ করেন, তারা কমোড ব্যবহার না করে ওয়াশরুমের ফ্লোরেই মুত্র ত্যাগ করেন। এটা একেবারেই জঘন্য কাজ। কমোড ব্যবহার করতে শিখুন। কমোড ছাড়া অন্য কোন স্থানে মলমুত্র করবেন না।

৬) দেখা গেল আপনার জুতোর নোংরা দাগ মেঝেতে পড়লো, সেটা দেখে বেরিয়ে আসলেন। এমনটি কখনই করবেন না। পানি ঢেলে পরিষ্কার করে দিন। এতে রুচিবোধের পরিচয় মিলবে।

৭) মাঝে মাঝে দেখা যায়, অফিসের নারীকর্মীরা কাজের ফাঁকে ফাঁকে টিপটাপ সাজতে পছন্দ করেন। তারা ওয়াশরুমে গিয়ে চুল আচড়ানো থেকে সাজগোজের বিষয়টা সেখানেই সেরে ফেলেন। এতে করে দেখা যায় মেঝেতে চুল, টিস্যু ইত্যাদি পড়ে যায়। অবশ্যই সেগুলো পরিষ্কার করে বের হতে হবে।

৮) ওয়াশরুমের বেসিনে থুথু, কফ ইত্যাদি ফেললে অবশ্যই পানি দিয়ে পরিষ্কার করে দিন। না হলে অপরজনের রুচিতে বাধবে। সুতরাং পরিষ্কার করে রুচির পরিচয় দেন।

৯) প্রয়োজনের অতিরিক্ত ওয়াশরুমে বসে থাকবেন না। অর্থাৎ ওয়াশরুমে বসে ফোনে কথা বলা, জোরে জোরে গান গাওয়া হতে বিরত থাকুন। বাইরের ওয়াশরুমের ওয়ালে কখনই কিছু লিখবেন না বা কোন দাগ দিবেন না।

১০) ওয়াশরুমে রাখা তোয়ালে দিয়ে অন্য কোন অঙ্গ মুছবেন না এবং হাত মোছা হলে নির্দিষ্ট স্থানে রেখে দিন। এছাড়া অনেক ওয়াশরুমে এয়ার ফ্রেশনার রাখা থাকে। সেক্ষেত্রে বের হওয়ার পূর্বে স্প্রে করে বের হন।

About the author

নরসুন্দা ডটকম