সোশ্যাল মিডিয়া

জয়া-ই তো দেবী…

নরসুন্দা ডটকম   October 18, 2018

।। হাসানুজ্জামান সাকী ।।

‘দেবী’ মুক্তি পাচ্ছে। কয়েক মাস ধরেই এ আলোচনায় মুখর চলচ্চিত্র অঙ্গন। মুক্তির ঠিক একদিন আগে আবারও জোরেসোরে আলোচনায় এলো ‘দেবী’। এ আলোচনার কারণ ‘দেবী’ ছবির দুই প্রধান শিল্পী জয়া আহসান ও চঞ্চল চৌধুরী বুধবার রাতে মাছরাঙা টিভিতে নিউজ প্রেজেন্টেশন করেছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এটিকে মার্কেটিং পলিসি বলছেন সবাই। জয়া-চঞ্চলও জানালেন, ‘দেবী’ মুক্তির জন্যই তারা এই ছবির সম্প্রচার সহযোগী মাছরাঙা টেলিভিশনে সংবাদ পাঠক হয়েছেন। জয়া আহসান ও চঞ্চল চৌধুরী মাছরাঙা টিভিতে এসেছেন খবর হয়ে নয়, বরং খবর জানাতে। অর্থাৎ তারা পূর্ণাঙ্গ একটি সংবাদ বুলেটিন প্রেজেন্ট করেছেন।

মার্কেটিং পলিসি নিয়ে নয়, আজ বরং আমি জয়ার কথাই বলি। চঞ্চল চৌধুরীর নিউজ প্রেজেন্টেশন গতানুগতিক হলেও জয়া ছিলেন স্টানিং। নিউজ প্রেজেন্টেশন থেকে নায়িকা হয়েছেন বুবলি। সম্প্রতি আরও একজনের নাম শোনা যাচ্ছে– রোদেলা জান্নাত। রোদেলা ও তার মা শাহীনা আখতার দুজনই আমার সহকর্মী ছিলেন। শাহীনা আপাকে এটিএন বাংলায় আমি পেয়েছি অনুষ্ঠান বিভাগের একজন প্রযোজক হিসেবে আর বৈশাখীতে তিনি ছিলেন আমাদের নির্বাহী প্রযোজক। রোদেলা সেখানে একটি অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করতেন। যাক, এ সুযোগে রোদেলার জন্যও শুভ কামনা জানালাম। রোদেলা শাকিব খানের সাথে তার জীবনের প্রথম ছবিটি করতে যাচ্ছেন। ‘শাহেন শাহ’ নামে ছবিটির শুটিংও শুরু হয়ে গেছে ইতোমধ্যে।

জয়া আহসান

বুবলি-রোদেলা থেকে জয়ায় ফিরে আসি– যিনি কিনা বুবলি-রোদেলার পূর্বের প্রফেশনে আজ ভূমিকা রাখলেন। না নাটকে বা সিনেমায় নয়, একেবারে বাস্তব জীবনে। এই নিয়েই যত আলোচনা।
জয়া একজন নায়িকা। তিনি একজন ভার্সেটাইল অভিনয়শিল্পী। আজ নিউজ প্রেজেন্টেশনটাও এত চমৎকারভাবে করলেন যে দু’কলম লিখতে আগ্রহী হলাম।

আমরা যারা নিউজ রিপোর্টার, আমাদের নিউজ প্রেজেন্টেশনে বসলে ডেলিভারীতে কিছু সমস্যা হয়। দৃশ্য-মিডিয়ায় রিপোর্টিং আর প্রেজেন্টেশনের মধ্যে প্রার্থক্য আছে। কিন্তু কী অবলীলায় জয়া তা করে দেখালেন একজন দক্ষ সংবাদ পাঠিকার মতো। নিউজ প্রেজেন্টেশনে জয়ার গেটআপ, থ্রোয়িং, ডেলিভারি, স্ট্রেস, পজ, ইনটোনেশন, সিনক্রোনাইজেশন… সব কিছু এতটাই পারফেক্ট ছিল যে অভিনই শুধু নয় তিনি নিজের জীবনেরই ভার্সেটাইল আরেকটা দিক সামনে নিয়ে আসলেন।

এই হলো জয়া, জয়া আহসান। জীবনের সবকিছুই তিনি করতে পারেন অসাধারণ দক্ষতায়। এই জয়া-ই যখন চলচ্চিত্রে প্রযোজক হিসেবে নাম লেখালেন, তখন ধরেই নিতে পারি এখানেও তিনি সফল হবেন।

‘দেবী’কে আমরা যদি পূজনীয় ভাবি তাহলে জয়া হোক আমাদের সকলের পূজনীয়। তার প্রযোজনায় প্রথম ছবি ‘দেবী’ মুক্তি পাচ্ছে এমন এক দিনে যেদিন সত্যিকারের দেবীদূর্গা বিসর্জনে যাচ্ছেন। দূর্গাদেবীকে বিসর্জন দিয়ে আসুন আমরা নতুন এই দেবী’কে নিয়ে মেতে উঠি।

বাংলা চলচ্চিত্রে জয়া-ই তো আমাদের ‘দেবী’।

হাসানুজ্জামান সাকী, ১৭ অক্টোবর ২০১৮, নিউইয়র্ক। নোট: লেখকের ফেসবুক পেজ থেকে নেয়া।

আরো পড়তে পারেন…

হিউস্টনে রবীন্দ্রনাথের সঙ্গে একটি সন্ধ্যা : লুৎফর রহমান রিটন

মহাত্মা লালন, আপনাকে সালাম: সৈয়দ কামরুল হাসান

About the author

নরসুন্দা ডটকম